প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়, ওনাকে আমরা সবাই চিনি, তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। এখনও তিনি সঙ্কটজনক পরিস্তিতি থেকে বের হননি, চিকিৎসায় ওনার শরীর সাড়া দিচ্ছেন না।

হাসপাতালের থেকে তেমনটাই জানানো হয়েছে। মঙ্গলবার রাত্রি তে সেনা হাসপাতালের থেকে বুলেটিনে প্রকাশ করা হয়েছে- ‘প্রণব মুখোপাধ্যায়ের মস্তিস্কের অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল, কিন্তু তাঁর ফলেই শারীরিক অবস্থার কিছুটা অবনতি হয়েছে। তিনি এখনও ভেন্টিলেশনে আছেন

আজকের বুলেটিনে হাসপাতাল থেকে জানানো হয় যে, ‘সোমবার বলো বেলা১২টা নাগাদ প্রণববাবুর শারীরিক অবনতি হওয়ায়, সঙ্কটজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। ব্রেন স্ক্যান করানোর পরে জানা যায় তাঁর মাথায় অনেকখানি রক্ত জমাট বেঁধে ছিল। অস্ত্রোপচারের পরেও তাঁর শারীরিক অবস্থার খুব একটা উন্নতি হয়নি

রবিবার রাতে বাড়ির শৌচাগারে যেতে গিয়ে অসাবধানতা বসত পড়ে গিয়ে মাথায় চোট লাগে প্রণব মুখোপাধ্যায়ের.| সে সময় রক্তপাত না হলেও, সোমবার সকাল থেকে ওনার বিভিন্ন স্নায়ুঘটিত সমস্যা দেখা দেয়, বাঁ- হাত নাড়াচাড়া করতে অসুবিধা বোধ করেন.| সেই কারণেই তিনি চিকিৎসকের পরামর্শ নেন এবং আর্মি হসপিটাল রিসার্চ অ্যান্ড রেফারেল-এ যান|

এমআরআই স্ক্যান করে দেখা যায় যে, আঘাত পাওয়ার কারণে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির মাথায় বেশ খানিকটা রক্ত জমাট বেঁধেছে। তাই তড়িঘড়ি ওনার মাথায় অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসক মহল |

অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় গতকাল জানান যে, চিকিৎসকের বক্তব্য ছিল, অস্ত্রোপচার করা না হলে, পরিস্থিতি জটিল আরো জটিল থেকে জটিলতর হতে পারে| এদিকে অস্ত্রোপচারের কিছুক্ষন আগে ওনার করোনা পরীক্ষানিরীক্ষা করলে,জানা যায় যে, প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি করোনায় পজিটিভ। প্রণবপুত্র আরও জানিয়েছিলেন যে, ‘অস্ত্রোপচারের পর ধীরে ধীরে পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির শারীরিক অবস্থার।

তবে ওনাকে আরো চারদিন চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণেই থাকার কথা বলা হয়েছে । প্রতি এক ঘণ্টা অন্তর বুলেটিন প্রকাশ করা হবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ- এর পক্ষের তরফ থেকে। এছাড়াও পরিবারের এক জন করে সদস্য হাসপাতালে যাওয়ার অনুমতির ছাড়পত্র দিচ্ছে হাসপাতাল|

সূত্রের খবর, ৮৪ বছর বয়সি প্রাক্তন রাষ্ট্রপতিকে ভেন্টিলেশনে রাখা হলেও, তিনি স্বাভাবিক ভাবে শ্বাস-প্রশ্বাস নিচ্ছেন। এবং ওনার শরীর সুস্থ আছে| সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবেই তাঁকে ভেন্টিলেশনেই রাখা হবে | আপাতত মূল সমস্যা হল, অস্ত্রোপচারের জায়গা থেকে রক্তক্ষরণ কোনো ভাবেইবন্ধ হচ্ছে না।

রক্তক্ষরণ বন্ধ না হলে তাঁর অবস্থার উন্নতি হবে না বলেই মনে করছেন চিকিৎসক মহল। বিভিন্ন ক্ষেত্রের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের নিয়ে তৈরি একটি দল প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির দেখভাল করছেন। পাশাপাশি সরকারের শীর্ষ স্তর থেকে নিয়মিত, প্রতিদিন তাঁর স্বাস্থ্যের খোঁজখবর নেওয়া হবে|

ওনার অসুস্থ হয়ে পরার পরেই,রাজনৈতিক স্তরে অনেকেই তাঁর খোঁজখবর নিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ সুস্থতা কামনা করেছেন ও আগেই টুইট করেছেন, ফোন করে খোঁজ নিয়েছেন। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গাঁধী-সহ অন্যান্য নেতা-মন্ত্রীরাও প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির সুস্থতা কামনা করেছেন। প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং প্রণববাবুর স্বাস্থ্যের খবর নিতে গতকালই হাসপাতালে গিয়েছিলেন|

প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির কীর্ণাহারের মিরিটি গ্রামের মানুষের মন ভাল নেই, কারণ তাঁদের সবথেকে কাছের মানুষটি যে ভাল নেই, গুরুতর অসুস্থ। তাই আজ থেকে শুরু হচ্ছে তার আরোগ্য কামনা করে বিশেষ পুজো। প্রণব মুখোপাধ্যায়ের দ্রুত আরোগ্য কামনায় এই পুজো-পাঠ এবং মহামৃত্যুঞ্জয় যজ্ঞ, চলবে তিনদিন ধরে।