সুদীপা সরকার: গতকাল মহা সমারোহে সম্পন্ন হলো বহু প্রতীক্ষিত রামমন্দিরের ভূমিপূজা। অনুষ্ঠানস্থলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যপাল আনন্দীবেন প‍্যাটেল এবং আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত। পূর্বদিন থেকেই আলোয় সাজছিল অযোধ্যা।

দীপাবলির মতোই আলোর উৎসবে মেতেছিল অযোধ্যাবাসী। জয় শ্রী রাম ধ্বনিতে মুখরিত হচ্ছিলো অযোধ্যার চারিদিক। এই উৎসবের রেশ পৌঁছায় দিকে- দিগন্তরে। উৎসবের আবহে মেতে ওঠে শ্রীলঙ্কা এবং যোগী আদিত্যনাথের দপ্তর বিবিধ পুষ্পরাগে সজ্জিত হয়।

ঘড়িতে তখন দ্বিপ্রাহরিক সময়, বারোটা বেজে চুয়াল্লিশ মিনিট আট সেকেন্ড। এই পুণ্যলগ্নেই রামমন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন সম্পন্ন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। এই ভূমিপূজাকে কেন্দ্র করে নিউ ইয়র্কের টাইমস স্কোয়‍্যারও মুখরিত হয় জয় শ্রী রাম ধ্বনিতে। সেখানকার বিশাল আকারের বিলবোর্ডে এই অনুষ্ঠানের ছবি এবং ভগবান শ্রী রামের মাহাত্ম্য দেখানো হয়। সকল ভারতবাসীর কাছে এ এক ঐতিহাসিক গর্বের দিন এবং সংস্কৃতির আধুনিকতম প্রতীক।

সমগ্র পৃথিবীর বিভিন্ন স্থানে তথা ইংল্যান্ড, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, নেপাল প্রভৃতি দেশে এই রামমন্দিরের ভূমিপূজা অনুষ্ঠানের সরাসরি সম্প্রচার করা হয়েছে। দূরদর্শন চ্যানেলের পক্ষ থেকেই মূলত এই সরাসরি সম্প্রচারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এইসময় অনুষ্ঠানস্থলে ছিল অসংখ্য ক্যামেরা যা উচ্চপ্রযুক্তির সাহায্যে বিশ্ববাসীকে এই ঐতিহাসিক অনুষ্ঠানের সাক্ষী থাকতে সর্বতোভাবে সাহায্য করেছে।

ইউটিউবেও এই সম্প্রচারের দর্শক হয়েছেন দেশ-বিদেশের অগণিত মানুষ। আসমুদ্রহিমাচল পেরিয়ে বিদেশের মাটিকেও স্পর্শ করেছে এই উৎসবের রেশ। তথ্যসূত্র অনুযায়ী ভারতের সর্বমোট ২০০টি চ্যানেল, ১২০০টি স্টেশন এবং ৪৫০টি মিডিয়া হাউস এই অনুষ্ঠানের সরাসরি সম্প্রচারে তৎপর হয়েছিল, যার সিগন্যাল বিতরণ করা হয়েছিল ASIAN NEWS INTERNATIONAL – এর দ্বারা।