সময় বদল ডেস্ক: এবছর প্রথম সূর্য গ্রহন হতে চলেছে একুশে জুন।ঐদিন সূর্যের উপর নেমে আসবে কালো অন্ধকার। উত্তর ভারতের পাশাপাশি এই গ্রহণ দেখতে পারবেন কলকাতাবাসীও। কলকাতায় এই গ্রহণ দেখা যাবে সকাল ১০ টা ৪৬ মিনিট থেকে বেলা ২টো ১৭ মিনিট পর্যন্ত। চূড়ান্ত গ্রহণ সকাল ১২টা ৩৫ মিনিট ০৫ সেকেন্ড।

যুগ যুগ ধরেই এই সূর্য এবং চন্দ্র গ্রহণ নিয়ে নানারকম সংস্কার রয়েছে মানুষের মধ্যে। হিন্দু ধর্ম অনুসারে আষাঢ় মাসে অমাবস্যা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। আগামী একুশে জুন হালহারিনি অমাবস্যা পড়েছে। এই দিনটি কৃষকদের জন্য যথেষ্ট হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। শস্য বপন করার জন্য এই সময় যথেষ্টই শুভ। তাই পুজো দিয়ে এই সময় শুভ কাজ শুরু করতে পারবেন কৃষকরা। অন্যদিকে কালসর্প দোষ কাটাতেও এই দিনটির তাৎপর্য রয়েছে বলে মনে করেন অনেকেই।

কলসর্প দোষের কারণে যদি কোনও ব্যক্তি সমস্যায় পড়ে থাকেন, তবে হালহারিনী অমাবস্যের দিন সকালে খুব তাড়াতাড়ি উঠে স্নান করে রূপোর তৈরি সর্পের মূর্তির পূজা করতে পারেন। এটি কিছু প্রবাহিত জলে সাদা ফুলের সাথে প্রবাহিত করুন।

এই নিয়মটি মানলে কালসর্প দোষ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।কালসর্প দোষ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য হালহারিণী অমাবস্যাতে সকালে উঠে সকালে স্নান করার পরে আপনার বাড়ির আশেপাশের যে কোনও শিবমন্দিরে যান এবং শিবলিঙ্গে তামার সর্প উৎসর্গ করুন এবং সেখানে বসে মহামৃত্যুঞ্জয় মন্ত্র পাঠ করুন। এর পরে, আপনাকে কলসর্প দোষ থেকে মুক্তি পেতে শিবের কাছে প্রার্থনা করতে হবে, যদি আপনি তা করেন তবে আপনি অবশ্যই উপকার পাবেন।

তবে এই সূর্যগ্রহণের অশুভ প্রভাব থাকবে ৮ টি রাশির উপর। এই ৮ টি রাশি হলো বৃষ, মিথুন, কর্কট, তুলা, বৃশ্চিক, ধনু, কুম্ভ এবং মীন রাশি। তাই যথেষ্ট সতর্ক থাকতে হবে এই আটটি রাশির মানুষদের। গ্রহণের সময় যেকোনো শুভ কাজ থেকে বিরত থাকাই উচিত। সামর্থ অনুযায়ী এই দিন দুঃস্থ লোকদের জন্য খাদ্যশস্যও দান করুন।